• NIFT | NIET | NPI | Sonargaon University Admission
  • Bangladesh Malaysia Study Centre Ltd (BMSCL)
  • Trauma Institute Of Medical Assistant Training School
  • Institute of Science and Technology | Diploma in Engineering
  • Online Advertisement | 6
  • Fee Pay | Credit Card Service
ঢাবির ৯৪ শিক্ষার্থী পেয়েছে ডিনস অ্যাওয়ার্ড মাস্টার্স ভর্তির রিলিজ স্লিপের মেধা তালিকা প্রকাশ ২২ অক্টোবর ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটিতে আন্তঃব্যাচ বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত ড্যাফোডিলে আন্তর্জাতিক সেমিনার অনুষ্ঠিত কুবির শিক্ষক সমিতির আন্দোলনে শিক্ষার্থী-কর্মচারীদের একাত্মতা একই হলে ছাত্রদের সাথে থাকার দাবিতে আন্দোলনে ছাত্রীরা 'জাতীয় জীবনে কারিগরি শিক্ষার গুরুত্ব' শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠক জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩টি আঞ্চলিক কেন্দ্রের অনুমোদন ইংরেজি বিষয়ের ক্লাস ইংরেজিতেই নেয়ার নির্দেশ মাউশির রবীন্দ্র মৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের ১ম উপাচার্য ড. শাজাহান For Advertisement Call Us @ 09666 911 528 or 01911 640 084 শিক্ষা সংক্রান্ত বিষয়ে সহযোগিতা নিতে ও এডু আইকন ফোরামে যুক্ত হতে ক্লিক করুন Career Opportunity at Edu Icon: Apply Online চায়নায় স্নাতকোত্তর লেভেল এ সম্পূর্ণ বৃত্তিতে পড়াশুনা করতে যোগাযোগ করুন: ০১৬৮১-৩০০৪০০ | ০১৭১১১০৯ ভর্তি সংক্রান্ত আপডেট খবরাখবর এর নোটিফিকেশন পেতে ক্লিক করুন চার বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সে Niet Polytechnic-Dhaka পলিটেকনিকে ভর্তি চলছে All trademarks and logos are property of their respective owners. This site is not associated with any of the businesses listed, unless specifically noted.
  • Good Luck Ball Pen

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি প্রস্তুতি; 'ক' ইউনিট

Amrita Banik | August 01, 2017
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

ইতোমধ্যে কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা হয়েছে। এর মধ্যেই শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি প্রস্তুতি নেয়া শুরু করেছে। আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল ইউনিটের পরীক্ষার সম্ভাব্য তারিখ নির্ধারন করা হয়েছে। আজ এখানে আলোচনা হবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক-ইউনিটে ভর্তি প্রস্তুতি নিয়ে।

প্রথমেই আলোচনা করা যাক ‘ক’ ইউনিট নিয়ে। ‘ক’ ইউনিট (বিজ্ঞান) অন্তর্ভুক্ত বিভাগসমূহ:

বিজ্ঞান অনুষদ: ১। পদার্থ বিজ্ঞান, ২।গনিত, ৩। রসায়ন, ৪। পরিসংখ্যান, প্রাণপরিসংখ্যান এবং তথ্যপরিসংখ্যান

জীববিজ্ঞান অনুষদ: ১। মৃতিকা পানি ও পরিবেশ, ২। উদ্ভদবিজ্ঞান, ৩। প্রাণিবিদ্যা, ৪। প্রাণ রসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান, ৫। মনোবিজ্ঞান, ৬। অনুজীব বিজ্ঞান, ৭। মৎস বিজ্ঞান, ৮। জিন প্রকৌশল ও জীব প্রযুক্তি


আর্থ এন্ড এনভারমেন্টাল সায়েন্সস অনুষদ: ১। ভূগোল ও পরিবেশ, ২। ভূতত্ত্ব

ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনোলজি অনুষদ: ১। ফলিত পদার্থ বিজ্ঞান, ইলেক্ট্রনিক্স এন্ড কমিউনিকেশ ইঞ্জিনয়ারিং, ২। ফলিত রসায়ন ও রাসায়নিক প্রযুক্তি, ৩। কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং

ফার্মেসি অনুষদ: ফার্মেসি

পরিসংখ্যান: ফলিত পরিসংখ্যান

পুষ্ট ও খাদ্যবিজ্ঞান ইনস্টিটিউট: পুষ্টি ও খাদ্যবিজ্ঞান

তথ্য প্রযুক্তি ইনস্টিটিউট: তথ্য প্রযুক্তি


ভর্তি পরীক্ষার কিছু প্রয়োজনীয় তথ্য:

১। পদার্থ, রসায়ন, গণিত, জীববিজ্ঞান এই চারটি বিষয়ের উপর ১২০ মার্কস এর MCQ পরীক্ষা দিতে হবে। তবে কেউ যদি চায়, উচ্চ মাধ্যমিক এ শুধুমাত্র অপশনাল বিষয় এর পরিবর্তে বাংলা অথবা ইংরেজি উত্তর করতে পারবে।
সময়ঃ ১ ঘণ্টা ৩০ মিনিট। অর্থাৎ প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য সময় পাওয়া যাবে মাত্র ৪৫ সেকেন্ড। তবে প্রশ্নগুলো এমনভাবে করা হয় যেন অল্প সময়েই উত্তর করা যায়। তাই প্রশ্নের উত্তরগুলোর আকার অবশ্যই ছোট হবে। ২/৩ স্টেপ এর বড় অঙ্কগুলো পরীক্ষায় আসবেনা।

২। ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার জন্য SSC ও HSC তে প্রাপ্ত GPA দ্বয়ের যোগফল (৪র্থ বিষয়সহ) ন্যূনতম ৮.০০ হতে হবে।

৩। GPA এর উপর মোট ৮০ নম্বরঃ SSC GPA কে ৬ দিয়ে গুণ + HSC GPA কে ১০ দিয়ে গুণ । গত বছরের নিয়ম অনুযায়ী, GPA অপশনালসহ হিসাব করা হয়।

৪। পরীক্ষায় ক্যালকুলেটর ব্যবহার করা যাবেনা। তবে ভয় পাওয়ার কোন কারন নেই- এমন প্রশ্ন বা প্রশ্নে এমন ডাটা দেওয়া থাকবে যাতে কেলকুলেটর ব্যাবহার করার প্রয়োজন না পড়ে। তবে যে কেলকুলেশনগুলো আমরা সচারচর হাতে করতে অভ্যস্ত নই এমন কিছু কেলকুলেশন হাতে করার প্র্যাকটিস করতে হবে।

৫। মুখস্থভিত্তিক কোন প্রশ্ন পরীক্ষায় আসে না। সাধারন জ্ঞান থেকেই প্রশ্ন হয়। সাধারন জ্ঞানগুলো আয়ত্ত করতে পারলে খুব সহজেই পরীক্ষায় উত্তর করা যাবে।
৬। পরীক্ষায় ১২০ টি প্রশ্নের মধ্যে ১০ থেকে ১৫ টি কঠিন প্রশ্ন হয়। কিন্তু মনে রাখতে হবে এই ১০/১৫ টি প্রশ্নের উপর তোমার চান্স পাওয়া বা ভালো সাবজেক্ট পাওয়া নির্ভর করেনা। তাই অযাচিত টপিক পরে সময় নষ্ট করোনা। প্রয়োজনীয় টপিকগুলো বারবার চর্চা করতে হবে।

শিক্ষা সংক্রান্ত খবরাখবর নিয়মিত পেতে রেজিস্ট্রেশন করুন অথবা Log In করুন।

Account Benefit
৭। হাজার হাজার প্রশ্ন মুখস্থ করে পরীক্ষায় ভালো করা সম্ভব না। প্রয়োজনীয় টপিকগুলোর কনসেপ্ট পরিষ্কার করতে পারলে সহজে প্রশ্নের উত্তর করতে পারবে।

৮। অযথা, অপ্রয়োজনীয়, মাথা বোঝাইকারি টেকনিক এর পেছনে ছুটলে ক্ষতি ছাড়া লাভ কিছু হবেনা। শুধুমাত্র এমন টেকনিকগুলো আয়ত্ত করা উচিত যেগুলো পরিক্ষায় প্রয়োগযোগ্য।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ‘ক’ ইউনিট এ শিক্ষার্থীদের জন্য মোট আসন সংখ্যা- ১৬৬০ টি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ‘ক’ ইউনিট এ পরীক্ষা দিয়ে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীরা মোট ২৮ টি ডিপার্টমেন্ট এ ভর্তি হতে পারবে।


‘ক’ ইউনিটের প্রস্তুতি: ‘ক’ ইউনিটের পরীক্ষা হয় ১২০ নম্বরে-পদার্থ, রসায়ন, গণিত আর জীববিজ্ঞান প্রতিটা ৩০ নাম্বার করে। উচ্চ মাধ্যমিকে যেটা চতুর্থ বিষয় থাকবে, সেটার বদলে ইচ্ছে করলে বাংলা বা ইংরেজি উত্তর করা যায়। আর কারো উচ্চ মাধ্যমিকে গণিত বা জীববিজ্ঞান না থাকলে সে বাংলা বা ইংরেজি দিয়ে ১২০ নাম্বার পূর্ণ করতে পারে। এক্ষেত্রে যে বিষয় উত্তর করা হবে না, তার সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলোতে ভর্তির সুযোগ হারাতে হবে। যেমন- জীববিজ্ঞান উত্তর না করলে ফার্মাসি, জেনেটিক্স, উদ্ভিদবিজ্ঞান, প্রাণিবিজ্ঞান এসব বিষয়ে বা গণিত উত্তর না করলে গণিত,কম্পিউটার বিজ্ঞান এসব বিষয়ে ভর্তি হওয়া যাবে না।

এমসিকিউ উত্তরপত্রে চার বিষয়ের বাইরে অন্য কোনো বিষয়ের বৃত্ত যদি ভুলেও ভরাট করে ফেলা হয়, তাহলে সেই উত্তরপত্র বাতিল হবে। এজন্য পরীক্ষার সময় কোন কোন বিষয় উত্তর করতে হবে তা আগেই ঠিক করে রাখা উচিত; প্রশ্ন পাওয়ার পর ঠিক করবো-এই মনোভাব ব্যর্থতার কারণ হতে পারে। পরীক্ষার সময় সময় খুব সাবধানে খরচ করতে হবে। এজন্য আগে থেকেই অনুশীলন করা উচিত।

ক্যালকুলেটর না থাকায় একটু সমস্যা হবে শিক্ষার্থীদের। এতে আবার লাভও আছে-জটিল গাণিতিক সমস্যা আসার সম্ভাবনা কমে গিয়েছে। তবে সাধারণ নামতা ভুলে গেলে চলবে না। ভর্তি পরীক্ষায় সাধারন জ্ঞান খুব কাজে আসে। নতুন কিছু পড়ার চেষ্টা না করে টেক্সট বই রিভাইজ দেওয়াটাই বেশি উপকারী হবে। সাথে গত পাঁচ-দশ বছরের প্রশ্নের উত্তর করা যেতে পারে।

কিছু কিছু বিষয়ে, বিশেষ করে জীববিজ্ঞানে, প্রশ্ন পুনরাবৃত্তি হতে দেখা যায়। আর যদিও এখন প্রশ্নের ধরন ভিন্ন হবে, তারপরও পুরোনো প্রশ্ন দেখলে কোন কোন টপিক থেকে বেশি প্রশ্ন আসে সে ব্যাপারে ধারণা তৈরি হবে। নেগেটিভ মার্কিং এর বিষয়েও লক্ষ্য রাখতে হবে। কারণ প্রতিটা ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নাম্বার কাটা হবে। এক্ষেত্রে পরামর্শ থাকবে অপশন বাদ দেওয়া।

প্রশ্নের উত্তর না জানলেও অনেক ক্ষেত্রে একটা বা দুটো অপশন উত্তর হবে না-এমনটা বলা যায়। এরকমভাবে যদি দুটো অপশন বাদ দেওয়া যায়, তাহলে বাকি দুটো থেকে আন্দাজে একটা বৃত্ত ভরাট করলে ঠিক হবার সম্ভাবনা ৫০ শতাংশ, যা নেওয়ার মতো ঝুঁকি। আর একটা অপশন বাদ দিতে পারলে এই সম্ভাবনা দাঁড়ায় ৩৩ শতাংশে। আর যদি একটাও বাদ দেওয়া না যায়, তাহলে এই সম্ভাবনা ২৫ শতাংশ, এক্ষেত্রে ঝুঁকি না নেওয়াই উচিত।
More detail about
Dhaka University

  • call for advertisement
Submit Your Comments:
  • Career @ Edu Icon
  • call for advertisement
  • ADDRESSBAZAR | YELLOW PAGE
  • Overseas Ambition Solutions Limited
  • call for advertisement
  • call for advertisement
  • RNR Bazar | Digital Marketing Agency
  • Personal Horoscope | Rashi12.com
  • call for advertisement
  • call for advertisement